ঘরে বসে NID কার্ড সংশোধন করবেন যেভাবে | NID Card Correction Online BD 2020

0
1590

এখন থেকে NID কার্ড সংশোধন করুন ঘরে বসে | NID Card Correction Online BD 2020

করোনা কালীন সময়ে সারাবিশ্ব যখন থমকে আছে সেই সাথে আটকে আছে বিভিন্ন দফতরের কাজ তাই সবকিছু এখন অনলাইনে চলছে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন NID কাডের্র সকল সেবা এখন থেকে অনলাইনে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছেন। তাই এখন আপনি চাইলেই ঘরে বসে আপনার NID কার্ড সংশোধন করতে পারবেন।

আরো পড়ুন: অনলাইন থেকে NID সংশোধন ছাড়াও আরো যেসব সেবা পাওয়া যাবে

অনলাইনে NID সংশোধন করতে হলে প্রথমে আপনাকে নির্বাচন অফিসের ওয়েবসাইটে আপনার NID এর তথ্য ব্যবহার করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে তারপর নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে সংশোধনের আবেদন করতে হবে। চলুন এবার দেখে নেই আমরা ধাপে ধাপে কিভাবে সবগুলা কাজ সম্পন্ন করব।

অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন

অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করার জন্য প্রথমে আপনাকে এই লিংকে https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/?session-expired=true ক্লিক করতে হবে। এই লিংকে গিয়ে আপনার NID নাম্বার, জন্ম তারিখ এবং একটি ক্যাপচার কোড ফিলাপ করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করবেন। তারপর আপনার বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা সিলেক্ট করে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন। তারপর একটি মোবাইল নাম্বার দিয়ে বার্তা পাঠান বাটনে ক্লিক করুন। সাথে সাথে আপনার মোবাইলে একটা কোড আসবে এটা দিয়ে বহাল বাটনে ক্লিক করুন। তারপর আপনাকে একটা পাসওয়ার্ড সেট করতে বলা হবে আপনি চাইলে পাসওয়ার্ড সেট করতে পারেন বা এড়িয়েও যেতে পারেন। এবার আপনার প্রয়োজনীয় সকল তথ্য দিয়ে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হল।

সংশোধনের জন্য আবেদন:-

অনলাইনে এনআইডি সংশোধন: অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনের জন্য আপনাকে প্রথমে উপরে বলা সিস্টেমে নির্বাচন অফিসের সার্ভারে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। তারপর আপনার NID তে লগইন করার পর প্রোফাইলে ক্লিক করবেন, তারপর এডিট বাটনে ক্লিক করবেন, আপনার প্রয়োজনমত যা যা সংশোধন করার দরকার তা ইডিট করে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করবেন। এই ধাপে আপনার NID তে যা যা সংশোধন করতেছেন তার বিস্তারিত দেখাবে সব ঠিক থাকলে আবারো পরবর্তী বাটনে ক্লিক করবেন। তারপর আপনার প্রয়োজনীয় ফি জমা দেওয়ার জন্য দেখাবে। আবারো পরবর্তী বাটনে ক্লিক করলে স্ক্রিনে দেখাবে কত টাকা পেমেন্ট করতে হবে। যত টাকা দেখাই তত টাকা আপনি জমা দিতে হবে।

যে সকল মাধ্যমে টাকা জমা দেওয়া যাবে: ১. ডাচ্-বাংলা ব্যাংক এবং রকেট মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে। ২. ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড এবং ওকে ওয়ালেট মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে। ৩. ট্রাষ্ট ব্যাংক লিমিটেড এবং টি-ক্যাশ মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে। ৪. মিউচুয়াল ট্রাষ্ট ব্যাংক লিমিটেড। ৫. বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক লিমিটেড। তবে এর মধ্যে রকেটে দিলেই সবচেয়ে ভালো।

অনলাইনে নিজে নিজে NID সংশোধনের আবেদন এবং ফি জমা দেওয়ার সিস্টেম জানতে নিচের ভিডিওটি দেখুন :-

টাকা জমা দেওয়ার পর আবারো পরবর্তী বাটনে ক্লিক করবেন। পরের ধাপে আপনার প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্র এড করতে হবে। এড করা শেষে আবারো পরবর্তী বাটনে ক্লিক করবেন এই ধাপে আপনার আবেদনের ফাইনাল একটা রিভিউ দেখাবে আপনি কি কি পরিবর্তন করতেছেন কি কি কাগজপত্র এড করছেন তার সবকিছু দেখাবে সবকিছু ঠিক থাকলে সাবমিট বাটনে ক্লিক করবেন।

ব্যাস আপনার কাজ শেষ। সাবমিটে ক্লিক করা সাথে সাথে আপনাকে NID এর হোম পেইজে নিযে আসবে আপনি প্রোফাইলে ক্লিক করলে দেখবেন লেখা আছে আপনার একটি আবেদন পেন্ডীং রয়েছে এটার পাশেই ডাউনলোড অপশন থাকবে এটাতে ক্লিক করলেই আপনার সংশোধনের আবেদন কপিটা ডাউনলোড হয়ে যাবে। এটাকে আপনি সংগ্রহ করবেন। এবার আপনি অপেক্ষা করতে থাকবেন যেদিন ঠিক হয়ে যাবে আপনার মোবাইলে ম্যাসেজ চলে আসবে তারপর আবার আপনার আইডিতে লগইন করে ডাউনলোড এ ক্লিক করলে আপনার সংশোধিত NID কার্ডটি পেয়ে যাবেন।

উল্লেখ্য যে, যদি কোন কারনে আপনার সংশোধনের আবেদনটা পেন্ডিং থাকে তাহলে আপনি ১০৫ এ কল দিয়ে আপনার আবেদনের আপডেট তথ্য জানতে পারবেন। আবেদন করার পর আপনার সংশোধনের উপর ভিত্তি করে যদি আপনার দাখিলকৃত কাগজপত্র কর্তৃপক্ষের কাছে পর্যাপ্ত মনে না হয় তাহলে তারা আরো কিছু কাগজপত্র চাইতে পারে। তারা যা চাইবে তা আপনাকে ম্যাসেজে জানাবে। যদি  কোন কাগজ এড করা লাগে তাহলে তা পূর্বের ন্যায় আবার নতুন করে এডে করে আবেদন সাবমিট করতে হবে। তারপর আবারো অপেক্ষা করতে হবে পরবর্তী নির্দেশনার জন্য।

NID কার্ড সম্পর্কে যে কোন তথ্য জানার জন্য আমাদের Facebook Group এ জয়েন করুন:

https://www.facebook.com/groups/nidcard

ইউটিউবে আমাদের সাথে সংযুক্ত হতে আমাদের চ্যানেলটি এখনি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

NID Card Correction Online BD

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here