হারানো বা নষ্ট হয়ে যাওয়া NID কার্ড ফেরত পাবেন যেভাবে | NID Card Reissue Application System

0
4413

হারানো, নষ্ট বা চুরি হয়ে যাওয়া NID কার্ড পুনরুদ্ধারের জন্য যা যা করতে হবে | NID Card Reissue Application System

যারা ইতিমধ্যে NID কার্ড পেয়েছেন কোন কারণে কার্ডটি হারিয়ে গেছে বা চুরি হয়ে গেছে অথবা কোন কারণে নষ্ট হয়ে গেছে তারা এখন থেকে চাইলে অনলাইনে রিইুসুর জন্য আবেদন করে ঘরে বসে NID কার্ডটি পুনরায় পেতে পারেন।

অনলাইনে হারিয়ে/চুরি বা নষ্ট হয়ে যাওয়া NID রিইস্যুর মাধ্যমে পুনরুদ্ধার করতে চাইলে প্রথমে আপনাকে নির্বাচন অফিসের ওয়েবসাইটে আপনার NID এর তথ্য ব্যবহার করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে তারপর নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে রিইসুর জন্য আবেদন করতে হবে। চলুন এবার দেখে নেই আমরা ধাপে ধাপে কিভাবে সবগুলা কাজ সম্পন্ন করব।

অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন:-

অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করার জন্য প্রথমে আপনাকে এই লিংকে https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/?session-expired=true ক্লিক করতে হবে। এই লিংকে গিয়ে আপনার NID নাম্বার, জন্ম তারিখ এবং একটি ক্যাপচার কোড ফিলাপ করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করবেন। তারপর আপনার বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা সিলেক্ট করে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করুন। তারপর একটি মোবাইল নাম্বার দিয়ে বার্তা পাঠান বাটনে ক্লিক করুন। সাথে সাথে আপনার মোবাইলে একটা কোড আসবে এটা দিয়ে বহাল বাটনে ক্লিক করুন। তারপর আপনাকে একটা পাসওয়ার্ড সেট করতে বলা হবে আপনি চাইলে পাসওয়ার্ড সেট করতে পারেন বা এড়িয়েও যেতে পারেন। এবার আপনার প্রয়োজনীয় সকল তথ্য দিয়ে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হল।

আরো জানুন:- ঘরে বসে NID কার্ড সংশোধন করবেন যেভাবে

NID হারিয়ে/চুরি বা নষ্ট হয়ে গেলে: আপনার NID কার্ডটি যদি হারিয়ে/চুরি বা নষ্ট হয়ে যাই তাহলে আপনাকে অনলাইনে প্রয়োজনীয় ফি জমা দিয়ে রিইস্যুর জন্য আবেদেন করতে হবে। যদি হারিয়ে গিয়ে থাকে তাহলে প্রথমে আপনাকে থানায় গিয়ে জিডি করতে হবে তারপর আপনার জিডি কপি দিয়ে অনলাইনে রিইস্যুর জন্য আবেদেন করতে হবে। হারিয়ে গেলে এবং চুরি হয়ে গেলে থানাতে জিডি করতে হবে এবং জিডির তথ্যগুলা অনলাইনে দিতে হবে। আর বাকি দুইটা দিলে জিডি করা লাগবে না তবে আপনার Nid কার্ডের কপি আপলোড করতে হবে।

অনলাইনে আবেদন করার জন্য উপরে দেখানো সিস্টেমে রেজিস্ট্রেশন করে আপনার NID তে লগইন করে দেখবেন রিইস্যু বাটন আছে এটাতে ক্লিক করবেন। তারপর কিছু তথ্য ফিলাপ করতে হবে। প্রথমেই পুনর্মুদ্রণ কারণ এটাতে আপনি কোন কারনে রিইস্যুর জন্য আবেদন করতে চাচ্ছেন সেটা সিলেক্ট করতে হবে। এখানে সাধারণত ৪টি অপশন থাকে যথা: ১। হারিয়ে গেছে, ২। চুরি হয়ে গেছে, ৩। নষ্ট হয়ে গেছে, ৪। ঠিকানা পরিবর্তন।

এখান থেকে আপনার কাঙ্কিত অপশন সিল্কেট করবেন এবং প্রয়োজনীয় সকল তথ্যগুলা ফিলাপ করবেন। তারপর পরবর্তী বাটনে ক্লিক করবেন। তারপর আপনার প্রয়োজনীয় ফি জমা দেওয়ার জন্য দেখাবে। আবারো পরবর্তী বাটনে ক্লিক করলে স্ক্রিনে দেখাবে কত টাকা পেমেন্ট করতে হবে। যত টাকা দেখাই তত টাকা আপনি জমা দিতে হবে।

অনলাইনে রিইসু ফি এর পরিমাণ:-

অনলাইন থেকে রিইসুর মাধ্যমে পুনরায় কার্ড পেতে হলে আপনাকে নির্বাচন অফিসের ফি ২৩০ টাকা জমা দিতে হবে। এই ফি প্রথমবার রিইসুর জন্য ২৩০ টাকা ২য় বার হলে ৩৪৫ টাকা এভাবে যত বেশী বার আবেদন করবেন তত ফি বাড়তে থাকবে।

যে সকল মাধ্যমে টাকা জমা দেওয়া যাবে: ১. ডাচ্-বাংলা ব্যাংক এবং রকেট মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে। ২. ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড এবং ওকে ওয়ালেট মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে। ৩. ট্রাষ্ট ব্যাংক লিমিটেড এবং টি-ক্যাশ মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে। ৪. মিউচুয়াল ট্রাষ্ট ব্যাংক লিমিটেড। ৫. বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক লিমিটেড। তবে এর মধ্যে রকেটে দিলেই সবচেয়ে ভালো। টাকা জমা দেওয়ার পর আবারো পরবর্তী বাটনে ক্লিক করবেন।

পরের ধাপে আপনার প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্র এড করতে হবে। হারিয়ে বা চুরি হয়ে গেলে জিডি কপি এড করবেন এবং অন্য দুইটা অপশন সিলেক্ট করলে আপনার NID তপি দিতে হবে। এড করা শেষে আবারো পরবর্তী বাটনে ক্লিক করবেন এই ধাপে আপনার আবেদনের ফাইনাল একটা রিভিউ দেখাবে কি কি কাগজপত্র এড করছেন তার সবকিছু দেখাবে সবকিছু ঠিক থাকলে সাবমিট বাটনে ক্লিক করবেন। ব্যাস আপনার কাজ শেষ।

সাবমিটে ক্লিক করা সাথে সাথে আপনাকে NID এর হোম পেইজে নিযে আসবে আপনি প্রোফাইলে ক্লিক করলে দেখবেন লেখা আছে আপনার একটি আবেদন পেন্ডীং রয়েছে এটার পাশেই ডাউনলোড অপশন থাকবে এটাতে ক্লিক করলেই আপনার সংশোধনের আবেদন কপিটা ডাউনলোড হয়ে যাবে। এটাতে আপনি সংগ্রহ করবেন। এবার আপনি অপেক্ষা করতে থাকবেন যেদিন ঠিক হয়ে যাবে আপনার মোবাইলে ম্যাসেজ চরে আসবে তাপর আবার আপনার আইডিতে লগইন করে ডাউনলোড এ ক্লিক করলে আপনার সংশোধিত NID কার্ডটি পেয়ে যাবেন।

জাতীয় পরিচয় পত্র হারিয়ে/নষ্ট হওয়া বা চুরি হওয়া নিয়ে কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের উত্তর:-

১। প্রশ্নঃ ID Card হারিয়ে গিয়েছে। কিভাবে নতুন কার্ড পেতে পারি?
উত্তরঃ নিকটতম থানায় জিডি করে জিডির মূল কপি দিয়ে অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

২। প্রশ্নঃ হারানো আইডি কার্ড পেতে কি কোন ফি দিতে হয়?
উত্তরঃ হ্যা অবশ্যই হারানো আইডি কার্ড পেতে করতে সরকার কর্তৃক নির্ধারিত ফি দিতে হবে।

৩। প্রশ্নঃ হারানো ও সংশোধন একই সাথে করা যায় কি?
উত্তরঃ হারানো ও সংশোধন একই সাথে সম্ভব নয়। আগে হারানো কার্ড তুলতে হবে, পরবর্তীতে সংশোধনের জন্য আবেদন করা যাবে।

৪। প্রশ্নঃ হারিয়ে যাওয়া আইডি কার্ড কিভাবে সংশোধন করব?
উত্তরঃ প্রথমে হারানো আইডি কার্ড উত্তোলন করে তারপর সংশোধনের আবেদন করতে হবে।

৫। প্রশ্নঃ প্রাপ্তি স্বীকারপত্র / স্লিপ হারালে করণীয় কি?
উত্তরঃ স্লিপ হারালেও থানায় জিডি করে সঠিক ভোটার আইডি নাম্বার দিয়ে হারানো কার্ডের জন্য আবেদন পত্র জমা দিতে হবে।

৬। প্রশ্নঃ প্রাপ্তি স্বীকারপত্র / ID Card হারিয়ে গেছে কিন্তু কোন Document নেই বা NID নম্বর/ ভোটার নম্বর/ স্লিপের নম্বর নেই, সে ক্ষেত্রে কি করণীয়?
উত্তরঃ সংশ্লিষ্ট উপজেলা/ থানা/ জেলা নির্বাচন বা আপনার এরাকার ইউনিয়ন পরিষদ/পৌরসভা, মেম্বার/কাউনসিলরের অফিস থেকে Voter Number সংগ্রহ করে সেটা দিয়ে আইডি নাম্বারটা বের করে অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

NID কার্ড সম্পর্কে যে কোন তথ্য জানার জন্য আমাদের Facebook Group এ জয়েন করুন:

https://www.facebook.com/groups/nidcard

ইউটিউবে আমাদের সাথে সংযুক্ত হতে আমাদের চ্যানেলটি এখনি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।

NID Card Reissue Application System

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here